সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন SEO টিউটোরিয়ালঃ Internal Optimization কিভাবে করবেন [[পর্ব-১৭

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন SEO টিউটোরিয়ালঃ Internal Optimization কিভাবে করবেন [[পর্ব-১৭

এক নজরে Internal Optimization এর Basic

 

আমরা জানি যে সিও ২ ধরণের। সে গুলো হল Internal and External optimization. On page seo ও off page seo এর synonym. On page seo নিয়ে পূর্বেই কমবেশি আলোচনা করছি। আপনারা হয় তো জানেন না যে, গুগল এখন on page optimization কে অনেক গুরুত্ব দেয়। সময় ছিল, যখন হাজার হাজার Backlink করতে পারলেই ranking পাওয়া সম্ভব ছিল।আপনারা যেন Fair উপায়ে করবেন না। Black hat seo করেছেন তো মরেছেন। আপনার ওয়েবসাইটের একপেজের সাথে অন্য পেজের লিঙ্ক কিভাবে করেছেন, কিওয়ার্ড density কেমন, page গুলো error free কিনা, কোন page broken অবস্থায় আছে কিনা- ইত্যাদি বিষয় গুলোকে Internal Optimization বলে। অনেক সময় দেখা যায় সাধারন পেজের keyword density কমানো বাড়ানোর ফলেই আপনাদের পেজ হয়ত গুগলে ২য় পেজ থেকে ১ম পেজে উঠে আসতে পারেন।

 

Backlink কি?

 

আমি মনে করি, সাইট A তে একটি Link আছে যার উপর ক্লিক করলে সাইট B তে যাওয়া যায়। তাহলে বলা যায় এক্ষেত্রে সাইট B এর একটি Backlink আছে এবং এই Backlink টি সাইট A, সাইট B কে দিয়েছে।Backlink – এ Dofollow tag থাকতে পারে। সাধারণত দেখা যায়, আপনি যদি কোন সাইটকে Backlink দেন তাহলে search engine যখন আপনার সাইট crowl করতে আসবে, তখন সে ঐ লিঙ্ক ও crowl করবে। আপনার পেজের যদি page rank থাকে তাহলে ratio অনুযায়ী কিছু পরিমান page rank ঐ back link করা সাইটাও পাবে। এখন মনে করুন, আপনি কাউকে Backlink দিতে চাচ্ছেন না কিন্তু, কেউ আপনার সাইটে এসে মন্তব্য করে তার ভিতর একটি লিঙ্ক দিয়ে গেল, তাহলেই সে কিন্তু একটি Back link পেয়ে গেল আপনার সাইট থেকে। এখন আপনি যদি চান যে কোন page rank বা link juice যে ব্যাকলিঙ্ক করছে সে পাবেনা- তাহলে আপনি এই লিঙ্কগুলো No follow করে রাখতে পারেন। no follow লেখার হল……

 

1<a her=”//www.sitename.com”” reel=””no follow””>Site Name</a>

 

এটি মূলত বিভিন্ন ব্লগিং সাইটে পাঠকদের মন্তব্যে অবস্থিত লিংকে ব্যবহৃত হয়, যা স্প্যামার বা অনাকাঙ্খিত ভিজিটরদেরকে তাদের সাইটের পেজ রেঙ্ক বাড়ানো প্রতিরোধ করে। এটি অযাচিত মন্তব্য প্রদানে স্প্যামারদেরকে নিরুৎসাহিত করে। তবে যেসকল ক্ষেত্রে স্প্যাম প্রতিরোধের ব্যবস্থা রয়েছে সেখানে no follow ব্যবহার না করা ভাল এতে পাঠকরা মন্তব্য প্রদানে উৎসাহিত হবে এবং সাইটের সাথে তাদের যোগাযোগ আর বেশি হবে। আবার অনেক সময় দেখা যায় গুগল যদি দেখে যে, আপনি একটি নিম্নমানের সাইটকে do follow লিঙ্ক দিয়েছেন, তাহলেও গুগল আপনাকে পেনাল্টি দিতে পারে।

 

 Page Rank

 

এটি একটি ওয়েবপেজ এর মান নির্ধারণ এর জন্য গুগল এর মাপকাঠি। এর ভিতর অনেক বিষয় নির্ভর করে। তবে, Page rank আর search engine rank কিন্তু আলাদা। কম পেজ র‌্যাঙ্ক নিয়েও Search engine এ top rank করা সম্ভব। এটা তেমন গুরুত্বপূর্ন নয় এখন। আর গুগলে সার্চ দিলে huge তথ্য পাবেন এটার সম্পর্কে।

  • ১% থেকে ৫% keyword density
  • Title
  • meta description
  • strong
  • me
  • h1
  • h2
  • alt
  • domain/file name
  • sitemap তৈরি করুন । যেমন: Image sitemap, Video sitemap, text sitemap etc
  • Reduce site loading time
  • Use Breadcrumbs
  • Interlinking
  • এটা হল সেই সমস্ত লিঙ্ক যা আপনার ওয়েবসাইটের এক পেজ অন্য পেজে যাওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়।
  • গুগল Anchor Text দ্বারা সিদ্ধান্ত নেয়, যে পেজে navigation হচ্ছে সেটা কোন টাইপের বা কি সম্পর্কিত পেজ।

Anchor Text এভাবে লিখতে হয়:

 

1<a her=”#”>anchor text</a>

 

কোন পেজে যত বেশি ইন্টারনাল লিঙ্ক থাকবে, গুগল সেই পেজটাকে তত বেশি গুরুত্ব দেবে।

 

 

লক্ষ্য রাখুন, আপনার পেজের লিঙ্কিং pattern যদি এমন হয় তাহলে  সবচেয়ে বেশি লিঙ্ক আছে Index page এ তারপরই আছে A, B এবং তারপরই অন্য পেজগুলো। এখন আপনি হয়ত চাচ্ছেন অন্য কোন page কে importance দিতে তাহলে আপনি যা করতে পারেন তা হল- আপনি প্রতি পেজ থেকে ঐ পেজে একটি করে Internal link করতে পারেন।

 

এতে করে Google boot যখন আপনার সাইট পরিদর্শনে আসবে এবং তখন যদি সে দেখে যে, কোন একটা পেজ অনেকগুলো পেজের সাথে linked অবস্থায় আছে, তখন Google boot মনে করবে, এই পেজটা নিশ্চয়ই গুরুত্বপূর্ণ না হলে এত গুলো লিঙ্ক থাকবে কেন।

এটা ছাড়াও আপনার খেয়াল রাখতে হবে:

  • প্রতিটা পেজের লিঙ্ক গুলো যেন কাজ করে।
  • প্রতিটা Image যেন ঠিকমতো শো করে।

আপনার পেজে যদি error থাকে তাহলে সার্চ ইঞ্জিন ও আপনার ভিজিটর দুজনকেই Frustrate করবে। High authority sites এর সাথে লিঙ্ক করুন। অনেক সময় মনে হতে পারে হোম পেজ থেকে অন্য কোন সাইটে Do follow link দেয়া উচিৎ না।ভালো থাকবেন, ধন্যবাদ।